1. info@dainikbd24.com : দৈনিক বাংলাদেশ : দৈনিক বাংলাদেশ
বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:৪২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বরখাস্তকৃত অধ্যক্ষের পুনরায় পদে দায়িত্ব পালনে অপচেষ্টার প্রতিবাদে মানববন্ধন ফুলছড়িতে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সমাবেশ অনুষ্ঠিত নয়াপল্টনে সমাবেশ করতে দেওয়া হবে না: ডিএমপি কমিশনার গোপালগঞ্জ মুক্ত দিবস পালিত নাটোরের নলডাঙ্গায় আখের জমি থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার! গাইবান্ধায় ‘স্বৈরাচার পতন দিবস’ পালিত অনিয়মের কারণে বন্ধ হওয়া গাইবান্ধা-৫ আসনে ভোট গ্রহণ ৪ জানুয়ারি। ভোলায় মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও সাংবাদিক যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ফজলুল হক মনি’র ৮৪ তম জন্মদিন পালিত নাটোরের সিংড়ায় জামতলী -বামিহালের রাস্তা সংস্করণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ শেখ ফজলুল হক মনির জন্মদিন উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা

ডিমলায় এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেন মা ও মেয়ে

স্টাফ রিপোর্টারঃ
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৮ নভেম্বর, ২০২২

নীলফামারীর ডিমলায় এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে মা ও মেয়ে।

তারা দুজনেই উপজেলার শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব সরকারি মহাবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। মেয়ে শাহী সিদ্দিকা বিজ্ঞান বিভাগ থেকে আর মা মারুফা আকতার একই কলেজের বিএম শাখা থেকে।

শনিবার (৬ নভেম্বর)সকালে মেয়ে শাহী সিদ্দিকা এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেন ডিমলা সরকারী মহিলা মহাবিদ্যালয় কেন্দ্রে অপরদিকে মা মারুফা আক্তার এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেন ডিমলা বিজনেজ ম্যানেজমেন্ট ইনস্টিটিউট কেন্দ্র থেকে। ২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষায় একসাথে অংশ নিয়ে মেয়ের চেয়ে ভালো ফলাফল করেন মা মারুফা আকতার পেয়েছিলেন জিপিএ ৪ দশমিক ৬০ এবং শাহী সিদ্দিকা জিপিএ ৩ দশমিক ০০।

জানা যায়, ২০০৩ সালে দশম শ্রেনীতেই লেখাপড়া শেখার অদম্য ইচ্ছেটা বুকের মধ্যে রেখে মারুফা আকতারকে বিয়ের পিঁড়িতে বসতে হয়েছিল। বিয়ের পর বন্ধ হয়ে যায় পড়াশোনা। চার ছেলেমেয়েকে মানুষ করতেই ১৫টি বছর চলে গেছে। মারুফা আক্তারের বিয়ে হয় উপজেলার খালিশা চাপানি ইউনিয়নের পুর্ন্যাঝার গ্রামের স্বামী সাইদুল ইসলামের সাথে। তার বাবার বাড়ি উপজেলার নাউতারা গ্রামে। স্বামী পেশায় একজন মাছ ব্যবসায়ী। দুই ছেলে দুই মেয়ের মধ্যে মেয়ে শাহী সিদ্দিকা বড়। দ্বিতীয় ছেলে দশম শ্রেনী,তৃতীয় মেয়ে অষ্টম শ্রেনী ও ছোট মেয়ে পঞ্চম শ্রেনীতে পড়াশোনা করে। পড়াশোনা শুরুর বিষয়ে জানতে চাইলে মারুফা আক্তার জানান, পড়াশোনার প্রতি তাঁর খুব আগ্রহ ছিল কিন্তু পরীক্ষার আগেই বিয়ে হয়ে যায়। তখন তিনি দশম শ্রেনীর ছাত্রী। বিয়ের পর চার ছেলেমেয়েকে মানুষ করতে গিয়ে নিজের পড়ার কথা ভাবার সময়ই হয়নি।

পরে নিজের অদম্য ইচ্ছা ও স্বামী ও সন্তানদের অনুপ্রেরণায় নবম শ্রেনীতে ভর্তি হন ছোটখাতা ফাজিল মাদ্রাসায় তখন মেয়েও নবম শ্রেনীর শিক্ষার্থী। এরপর ২০২০ সালে মেয়ের সাথে এস এস সি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে সাফল্যের সহিত উত্তীর্ণ হন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর...

© All Rights Reserved© 2022 DainikBD24

Theme Customized BY Sky Host BD