শনিবার, ২৫শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ-গ্রীষ্মকাল | ১৭ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি
Dainik Bangladesh - dainikbd24@gmail.com - facebook.com/Bangladesh24Official

পলাশবাড়ীতে ব্যবসায়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলার প্রতিবাদে অবরোধ, বিক্ষোভ ও মানববন্ধন

প্রকাশিত হয়েছে- মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ, ২০২৪

গত ক দিন থেকে দফায় দফায় ব্যবসায়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলার প্রতিবাদে ও হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বাজারের সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে আধা বেলা অবরোধ, মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করছেন ব্যবসায়ি ও এলাকাবাসী।

গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার আমলাগাছি বাজারের ব্যবসায়ীদের উপর দফায় দফায় হামলা করে বেশ কয়েকজনকে মর্মান্তিক আহত করা হয়েছে। সবশেষে গতকাল রবিবার বাজারে এক ব্যবসায়ির ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের উপর আমলাগাছি বাজারের পাশে বালিকা স্কুল সংলগ্ন এলাকা আগপাড়ার প্রবাসী সুলতান এর ছেলে সাইকো রমজান মিয়া’র নেতৃত্বে একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ অতর্কিত হামলা চালায় । এতে গুরুতর আহত হন টুকু নামে এক ব্যক্তি ৷ সে বর্তমানে গুরুতর আহত অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে ।

এর আগে ওই একই ব্যক্তি সন্ত্রাসী রমজানের নেতৃত্বে বিগত ১৬ মার্চ হামলার শিকার হন সেরাজুল, মজনু ও মজিবর মিয়া। এদের মধ্যে সেরাজুল বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রংপুরে আইসিইউ তে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এছাড়াও আরো বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী এই সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন। এই গ্রুপের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে আজ আঠারো মার্চ সোমবার সকাল থেকে দুপুর ২ টা পর্যন্ত আধাবেলা বাজারের ১৮০টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে মানববন্ধন, বিক্ষোভ ও অবরোধ করে ব্যবসায়ী ও এলাকাবাসীরা। এসময় দ্রুত সন্ত্রাসী সাইকো রমজান আলীকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নেওয়ার এবং সেই সাথে এই বাজারের স্বাভাবিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনার দাবী জানান বাজারের ব্যবসায়ী ও অত্রালাকাবাসী ।

উল্লেখ্য ওই সাইকো সন্ত্রাসী রমজান আলীর বিরুদ্ধে এলাকার কেউ মুখ খুলতে চায় না ৷ একাধিক ব্যক্তিরা জানান, ঐ রমজান যার উপরে একবার ক্ষুব্ধ হয় তাকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত না করা পর্যন্ত সে ক্ষান্ত হয় না ৷ যদি কাউকে মারতে ব্যর্থ হয় তবে নিজের শরীর কেটে সেই রক্ত সে পান করে ৷ বিগত মাস তিন চারেক আগে ৫নং মহদীপুর ইউপি সদস্য নওশা মেম্বারকে প্রকাশ্য দিবালোকে কুপিয়ে জখম করে এই রমজান ৷ কিন্তুু তার ভয়ে কেউ থানায় অভিযোগ বা মামলা পর্যন্ত করার সাহস পায় না বলে সাধারন মানুষের দাবী ৷