মাদারীপুরে পূর্ব শত্রুতার জেরে গৃহবধূকে কুপিয় জখম

দৈনিক বাংলাদেশদৈনিক বাংলাদেশ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:৪৬ AM, ২২ জুন ২০২২

মীর ইমরান নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

মাদারীপুর সদর উপজলার পেয়ারপুর এলাকায় পূর্ব শত্রুতার জেরে ইজিবাইক গতিরোধ করে পপি বেগম (৪০) নাম এক গৃহবধূকে কুপিয় হত্যা চষ্টার অভিযাগ পাওয়া যায়। স্থানীয়রা আহত অবস্থায় পপি বেগমকে উদ্ধার করে জেলার সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

সোমবার (২০ জুন) বিকেলে সদর উপজলার পেয়ারপুর এলাকার বড়াইল বাড়ি মাদ্রাসার সামনে এ ঘটনা ঘটে। আহত পপি বেগম সদর উপজলার কদুয়া বাজিতপুর গ্রামর আলমগীর মাতুবরর স্ত্রী।

এ ঘটনায় আহতর বড় বোন রেবা বেগম বাদি হয়ে সদর উপজলার পয়ারপুর এলাকার জাফর তালুকদার, পিতাঃ খালেক তালুকদার, সাবাব তালুকদার, পিতাঃ ওহিদ তালুকদার, নুর আলম তালুকদার ও রিটু তালুকদার উভয় পিতাঃ নুর-হক তালুকদারসহ অজ্ঞাত আরো ৫/৬ জনে নামে উল্লেখ করে মাদারীপুর সদর মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযাগ দায়ের করেন।

ভুক্তভাগীর পরিবার সুত্র জানাযায়,সোমবার বিকেলে সদর উপজেলার কেদুয়া বাজিতপুর এলাকা থেকে ইজিবাইক জোগে পপি বেগম তার শ্বশুরবাড়ি থেকে ভাগ্নীর বাড়ি সদর উপজলার পেয়ারপুর এলাকায় বেড়াতে যাওয়ার পথে পেয়ারপুর এলাকার বড়াইল বাড়ি মাদ্রাসার সামনে ইজিবাইক গতিরোধ করে পেয়ারপুর এলাকার জাফর তালুকদার, সাবাব তালুকদার, নুর আলম তালুকদার, রিটু তালুকদারসহ অজ্ঞাত আরা ৫/৬ জন। এসময় তারা পপি বেগমকে অকাথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন এবং ইজিবাইক থেকে নামিয় দশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে পপি বেগমের উপর হামলা চালায়।এসময় রড, হাতুড়ি ও রামদা দিয়ে এলোপাথাড়িভাবে কোপাতে থাকে।পরবর্তীতে তার ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে আসলে ঘটনা স্থান থেকে পালিয় যায় হামলাকারীরা।পরে স্থানীয়রা অচেতন অবস্থায় পপিকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন ।

আহত পপি বেগম বলেন,জাফর তালুকদার, সাবাব তালুকদার, নুর আলম তালুকদার, রিটু তালুকদারদের সাথে আমাদের পারিবারিক শত্রুতা আছে।তারা দীর্ঘদিন ধরেই আমাদের ক্ষতি করার জন্য সু্যোগ খুঁজছিল‌। আমি ভাগ্নীর বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার পথে আমাদের ইজিবাইক গতিরোধ করে আমার উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় আমাকে মেরে ফেলার জন্য দেশীয় অস্ত্র রড, হাতুড়ি দিয়ে মারতে থাকে পরে রামদা দিয়ে আমাকে য কোপায়। আমার ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে আসলে পালিয় যায় ঐ হামলাকারীরা। এসময় আমার সাথে থাকা স্বর্ণ গলার চেইন ও কানের দুল ছিনিয় নিয়ে যায়। আমি হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

এ ঘটনার বিষয়ে সদর মডেল থানার ‘ওসি’ মনোয়ার হোসেনন চৌধুরীর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান হামলার ঘটনায় অভিযাগ পেয়েছি, তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

আপনার মতামত লিখুন :