1. info@dainikbd24.com : দৈনিক বাংলাদেশ : দৈনিক বাংলাদেশ
মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:৫১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
গাইবান্ধায় একইসাথে দুই কলেজ ছাত্রী নিখোঁজ অবশেষে যাত্রা করলো মাদারীপুর ২৫০ শয্যা হাসপাতাল রোগী সেবা কার্যক্রম গাইবান্ধা বোয়ালী ইউনিয়নের আশ্রয়ণ প্রকল্পের পরিবারের মাঝে কম্বল বিতরণ গোপালগঞ্জে মাদক বিরোধী সমাবেশ ও শোভাযাত্রা গোপালগঞ্জে পিতার সন্ধানের দাবিতে পরিবারে সংবাদ সম্মেলন সুন্দরগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডে দুইটি বসতবাড়ি ভষ্মিভূত পলাশবাড়ীতে শেখ কামাল আন্তঃস্কুল ও মাদ্রাসা অ্যাথলেটিক্স অনুষ্ঠিত গোপালগঞ্জে জমিজমা বিরোধের জেরে ভাতিজাদের হাতে চাচা নিহত কোটালীপাড়া পৌর নির্বাচনে সম্ভাব্য ১৬ প্রার্থী সাদুল্লাপুরে জোনার ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে কুরআন শরীফ প্রদান।

গাইবান্ধায় ধর্ষনের সাজানো মামলা।বাদী গ্রেফতার

নিজম্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৩০ এপ্রিল, ২০২২

সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি:

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে গণধর্ষনের সাজানো মামলা দিয়ে হয়রানীর ঘটনায় মামলার বাদী এক নারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এরআগে তার বিরুদ্ধে মানহানীর অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়।

শনিবার (৩০ এপ্রিল) ভোরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাহেনা বেগম (৫৫) নামের ওই নারীকে গ্রেফতার করে। ওই নারী উপজেলার কঞ্চিবাড়ী ইউনিয়নের উত্তর কালির খামার গ্রামের মৃত রফিকুল ইসলামের স্ত্রী।

পুলিশ জানায়,গ্রেফতারকৃত রাহেনা বেগম একই গ্রামের খোরশেদ আলম,খুসু মিয়া,আনারুল ইসলাম, লান্টু মিয়া,আমিনুল ইসলাম ফরহদ ইতি ও সাহাব উদ্দিনকে আসামি করে গণধর্ষণের মিথ্যা অভিযোগ এনে গত বছরের ৩ মে থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।পরে সেই মামলায় প্রধান আসামি খোরশেদ আলমকে পুলিশ গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠায়।

পরবর্তীতে মামলাটি অধিকতর তদন্ত করে খোরশেদ আলমসহ অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে রাহেনা বেগমের আনীত ধর্ষনের অভিযোগের কোন সত্যতা না পেয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আদালতে চুড়ান্ত রিপোর্ট দাখিল করেন। পরে আদালত ওই নারীর দায়ের করা মামলা থেকে আসামিদেরকে অব্যহতি প্রদান করেন। সেই সাথে ‘মিথ্যা মামলা’ দায়ের করে আসামিদেরকে হয়রানি করায় ওই নারীর বিরুদ্ধে একই আইনে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পুলিশকে অনুমতি দেন।

এ ঘটনায় গত ২৯ এপ্রিল খোরশেদ আলম বাদি হয়ে গণধর্ষণের মিথ্যা মামলা দিয়ে তাদের আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করাসহ মানুসিক ও সামাজিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন এবং সম্মানক্ষুন্ন করায় রাহেনা বেগমের বিরুদ্ধে সুন্দরগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এমএ আজিজ বলেন, ‘রাহেনা বেগমের দায়ের করা মামলাটি তদন্ত শেষে সত্যতা না পাওয়ায় আদালতে চুড়ান্ত রিপোর্ট মিথ্যা দাখিল করায় আসামিদেরকে অব্যাহতি প্রদান করেন এবং ওই মামলার বাদী রাহেনা বেগমের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ প্রদান করেন।পরে তাকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়।ঘটনার এ বিষয়ে থানা অফিসার ইনচার্জ সরকার ইফতেখারুল মোকাদ্দেম বলেন, ‘গণধর্ষণের মিথ্যা মামলার ওই বাদিকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর...

© All Rights Reserved© 2022 DainikBD24

Theme Customized BY Sky Host BD