খেলার সাথীকে বাঁচাতে গিয়ে দুইজনেরই সলিল সমাধি

দৈনিক বাংলাদেশদৈনিক বাংলাদেশ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১১:২০ PM, ২১ এপ্রিল ২০২২

ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার নাচনমহল ইউনিয়নের একটি খালে পড়ে যাওয়া এক শিশুকে উদ্ধার করতে গিয়ে আরও এক শিশু পানিতে পড়ে যায়। শেষে দুজনেরই মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ এপ্রিল) বিকেলে উপজেলার খাগরাখানা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

প্রায় আড়াই ঘণ্টা চেষ্টার পরে সন্ধ্যা ৬টার দিকে দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে ডুবুরি দল। মৃতদের স্বজনদের কান্নায় ভারি হয়ে উঠেছে খাগরাখানা গ্রাম। মৃতরা হচ্ছে- রফিজা আক্তার (৭) ও আল আমিন (৬)।

নাচনমহল ইউনিয়নের গোবিন্দপুর এলাকার ইউপি সদস্য জামাল হোসেন জানান, দুপুরে খাগরাখানা গ্রামের শহিদ খানের মেয়ে রফিজা আক্তার ও সোহেল হাওলাদারের ছেলে আল আমিন খালের পাড়ে করছিল খেলা। আল আমিন ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্র সংলগ্ন একটি খালে গাছের তৈরি ঘাটে পা ধুতে গিয়ে পড়ে যায়। সাঁতার না জানায় সে পানিতে ডুবে যাচ্ছিল। তাকে বাঁচাতে গিয়ে পা পিছলে খালে পড়ে যায় রফিজা আক্তারও। এরপর থেকে দুই শিশুই নিখোঁজ হয়। বিষয়টি পাশের এক শিশু দেখতে পেয়ে নিখোঁজ শিশুদের পরিবারকে খবর দেয়। পরিবারের লোকজন বরিশাল ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলকে খবর দিলে বিকেলে এসে খালে উদ্ধার অভিযান চালান তারা।

বরিশাল নৌ ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলের লিডার মো. হুমায়ুন কবির জানান, অভিযান চালিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। মৃত আল আমিনের বাবা সোহেল হাওলাদার বলেন, আমি পরিবার নিয়ে খুলনায় থাকি। আমার ছেলে নানাবাড়িতে বেড়াতে আসার জন্য বায়না করে। পরিবার নিয়ে আমরা কিছুদিন আগে নানাবাড়ি খাগরাখানা গ্রামে এসেছি। আল আমিন পাশের বাড়ির একটি মেয়ের সঙ্গে খেলা করছিল। ওরা দুইজনই খালে পড়ে পানিতে ডুবে মারা গেছে।

নলছিটি থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রি বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ফায়ার সার্ভিসকে সহযোগিতা করে। মরদেহ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :